বিনিয়োগকারীদের ফতুর করতে মার্কেটে আসছে এসোসিয়েটেড অক্সিজেন

ঢাকা টেলিগ্রাফ: বিনিয়োগকারীদের ফতুর করতে পুঁজিবাজারে আসছে এসোসিয়েটেড অক্সিজেন। বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) এমনটাই অভিযোগ করেন একজন সাধারণ বিনিয়োগকারী।

মামুন-উল-হাসান নামে ওই বিনিয়োগকারী বলেন, এসোসিয়েটেড অক্সিজেন মূলত বিনিয়োগকারীদের পকেট কাটতেই পুঁজিবাজারে আসছে। যে কোম্পানি গত ৫ অর্থ বছরের মধ্যে মাত্র একটি অর্থবছরে ডিভিডেন্ট দিয়েছে। কোম্পানিটি ২০১৭ সালে যে ডিভিডেন্ড দিয়েছে তাও আবার স্টক ডিভিডেন্ড। যে কোম্পানির গত পাঁচ বছরের মধ্যে ক্যাশ ডিভিডেন্ড দেয়ার ক্ষমতা নেই এবং এর চার বছরে কোন ডিভিডেন্ড দেয়ার ক্ষমতা নেই তাদেরকে কেন তালিকাভুক্তির অনুমোদন দেয়া হয়?

তিনি বলেন, কোম্পানির প্রকাশিত প্রসপেক্টাসের ১৯৮ পৃষ্ঠার C অনুচ্ছেদের টেবিলে দেয়া তথ্য অনুযায়ী এসোসিয়েটেড অক্সিজেন গত  ২০১৫, ২০১৬ সালে কোন ডিভিডেন্ট দেয়নি, ২০১৭ সালে স্টক ডিভিডেন্ড দিয়েছে, ২০১৮,২০১৯ সালে কোন ডিভিডেন্ড দেয়নি। প্রশ্ন হচ্ছে এ ধরনের কোম্পানি কিভাবে তালিকাভুক্তির অনুমোদন পায়? এই অনুমোদনের পেছনে কার হাত রয়েছে বা কি ধরনের রহস্য রয়েছে? তা বিনিয়োগকারীদের জানানো উচিত।

এ বিষয়ে পুঁজিবাজার বিনিয়োগকারী ঐক্য পরিষদের সভাপতি মিজানুর রশীদ চৌধুরী বলেন, এর আগেও এই মার্কেটে এ ধরনের বহু নামসর্বস্ব কোম্পানিকে তালিকাভুক্তির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে, পরবর্তীতে তালিকাভুক্ত ও হয়েছে। কিছুদিনের মধ্যেই সেসব কোম্পানির পরিচালকদের খুঁজে পাওয়া যায় না। আবার যাদেরকে পাওয়া যায় তাদেরকে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি কর্তৃক জরিমানার মুখোমুখি হতে দেখা গেছে।

তিনি বলেন, আমার প্রশ্ন হলো এই ধরনের কোম্পানিকে তালিকাভুক্তির অনুমোদন দেওয়ার কি প্রয়োজন? আর জরিমানারই বা কি প্রয়োজন? এসব কোম্পানিকে তালিকা ভুক্তির জন্য যারা সহায়তা করে থাকেন সেসব মার্চেন্ট ব্যাংক গুলোকে শাস্তির আওতায় আনা উচিত।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কোম্পানির পক্ষ থেকে কোন সঠিক জবাব দিচ্ছেন না।

ঢাকা টেলিগ্রাফ/এম এস আই

image_pdfপিডিএফ করুনimage_printপ্রিন্ট করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *