যে পাঁচটি কাজ অফিসের ডিভাইসে করা উচিৎ না?

কম্পিউটার এখন আমাদের অফিস থেকে শুরু করে ঘরে,আড্ডায় এবং পকেটে চলে এসেছে। তাই তো এখনকার সময়ে কম বেশি সব কোম্পানিগুলো তাদের কর্মীদের কাজের সুবিধার জন্য দিচ্ছে বিভিন্ন ধরনের ডিভাইস। কম্পিউটার থেকে শুরু করে স্মার্টফোন, ল্যাপটপ, ট্যাব দেওয়া হচ্ছে এখন অফিস থেকে। সিকিউরিটির জন্য এই সব ডিভাইস দেওয়ার সময় অফিসের আইটি ডিপার্টমেন্ট থেকে ডিভাইসের সাথে সাথে লগ ইন,বাছাই করা কিছু অ্যাপ্লিকেশন দিয়ে দেওয়া হয়। তিন চার দিনের মাথায় ডিভাইসটিতে আপনার ব্যক্তিগত ছোঁয়া লাগতে শুরু করে। নিজেদের পছন্দ মতো অ্যাপ নামান, ওয়ালপেপার বদলান, সোশ্যাল সাইটের লগ ইন কিংবা অন্যান্য ব্যক্তিগত ডাটা জমা হতে শুরু করে কর্মক্ষেত্রের ডিভাইসে। কিন্তু সাইবার নিরাপত্তা বিষয়ক এক্সপার্টরা বলেন, আপনাদের এই ব্যক্তিগত ডাটা এবং প্রফেশনাল কাজ কর্ম গুলিয়ে গেলে যেমন আপনার নিরাপত্তা বিঘ্নিত হয় ঠিক তেমনি কোম্পানির।সফটওয়্যার টেকনোলোজি কোম্পানি ‘চেক পয়েন্ট’ ৭০০ আইটি কর্মীদের মাঝে চালায় এক সমীক্ষা। সমীক্ষার ফলাফল শুনলে আপনিও অবাক হবেন। তিন ভাগের দুই ভাগ কর্মী বিশ্বাস করেন কর্মীদের ব্যক্তিগত তথ্যের সাথে প্রফেশনার জগত মিলিয়ে ফেলার কারণে কোম্পানির সবচেয়ে বড় বড় আইটি এবং সিকিউরিটির সমস্যা তৈরি হয়। ‘চেক পয়েন্ট’ এর বরাত দিয়ে আরো বলা হয় “আপনার কোম্পানির নিরাপত্তা বিঘ্নিত হবার মূল কারণ আপনার কোম্পানির ভিতরেই থাকে!”

কর্মক্ষেত্রে ল্যাপটপ–ট্যাবলেটের মতো ডিভাইস দেওয়ার সময় বলে দেওয়া হয় অপ্রয়োজনীয় কাজে বা সাইটে না যেতে তবে বেশির ভাগ ক্ষেত্রে আমরা তারপরও আমরা নিজের ডিভাইস ভেবে ব্যবহার শুরু করি। আপনি ভাবলে অবাক হবেন নিষেধের পরেও অনেকেই নিষিদ্ধ সব সাইটেও ঢুঁ মারেন অফিসের ডিভাইস থেকে। কোন পাচটি কাজ অফিসের ডিভাইসে করা উচিৎ না?

১. গুরুত্বপূর্ণ এবং গোপনীয় কাজ কখনোই ফ্রি ওয়াই-ফাই জোনে বসে করবেন না।
২. আপনার কাজের ডিভাইসে বন্ধু কিংবা বাইরের লোকদের ব্যবহার করতে দেবেন না।
৩. অফিসের কাজের ডিভাইসে কোনো ব্যক্তিগত তথ্য রাখবেন না।
৪. অফিসের কম্পিউটারে আপনার পাশাপাশি চলমান কাজ করবেন না ।
৫. অফিসের মেসেজিং চ্যাটে অযথা এবং অশ্লীল কৌতুক করবেন না এবং অফিসের ডিভাইসে পাসওয়ার্ড সেভ করবেন না।

এখন যুদ্ধ বলতে সাইবার বা ইন্টারনেটে যুদ্ধ বোঝায়। এখন মানুষের নিরাপত্তা বলতে সাইবার নিরাপত্তা বোঝায়। আপনার অনলাইন তথ্য চুরি হয়ে গেলে সবচেয়ে বড় বিপদে পড়বেন আপনি। আমাদের দেশে সামান্য সিম দিয়ে ব্যক্তিগত তথ্য চুরি করে কত লোক বিপদে পড়ছে তার ইয়ত্তা নেই, তাই কর্মক্ষেত্রে নিজের তথ্য সাবধানে রাখুন এবং কোম্পানির ক্ষতির চ্যাপ্টার থেকে গা বাঁচিয়ে চলুন। কোম্পানি আপনাকে নচেৎ ছাড়ছে না!

টেলিগ্রাফ/এমএ জামান

image_pdfপিডিএফ করুনimage_printপ্রিন্ট করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *