সামসুল হত্যা মামলা: ফাঁসির সব আসামি খালাস

ঢাকার রাজারবাগ পুলিশ টেলিকম অফিসের অফিস সহকারী গোলাম সামসুল হায়দার হত্যা মামলায় নিম্ন আদালতে মৃত্যুদণ্ড পাওয়া পাঁচ আসামি ও যাবজ্জীবন সাজা পাওয়া দুই আসামিকে খালাস দিয়েছেন হাইকোর্ট।

আজ সোমবার বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথ এবং বিচারপতি এ এস এম আব্দুল মোবিনের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় ঘোষণা করেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল শাহীন আহমেদ খান। আসামিপক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী এ কে এম ফজলুল হক খান ফরিদ। তাঁকে সহায়তা করেন আইনজীবী সাইফুর রহমান রাহি।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০০৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর সকালে রাজধানীর মতিঝিলে এজিবি কলোনির সামনে দুষ্কৃতকারীরা গোলাম সামসুল হায়দারকে জবাই করে হত্যা করে। ওই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় সামসুলের বড় ভাই আবুল কালাম আজাদ বাদী হয়ে মতিঝিল থানায় মামলা দায়ের করেন। সামসুলের স্ত্রীর অভিযোগ, সামসুল হায়দারকে অফিশিয়াল দ্বন্দ্বের কারণে হত্যা করা হয়েছে।

তদন্ত শেষে পুলিশ আ. লতিফ, কাজল মিয়া, আনোয়ার হোসেন সরকার এবং হাফিজুল হাসানের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির ভিত্তিতে আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করে। এরপর ২০১৪ সালের ৩০ ডিসেম্বর ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১-এর বিচারক শাহেদ নূর উদ্দিন রায় ঘোষণা করেন।

রায়ে আসামি মো. আব্দুল লতিফ, আনোয়ার হোসেন সরকার, মো. কাজল মিয়া, মো. হাফিজুল হোসেন ও বাবুল ওরফে তপন চক্রবর্তীকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ প্রদান করেন। এ ছাড়া অপর আসামি মো. শামসুল আলম ও রাজন মিয়াকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডসহ এক লাখ টাকা করে জরিমানার আদেশ দেওয়া হয়।

পরে ২০১৫ সালে ওই মামলার আসামিদের (ডেথ রেফারেন্স) মৃত্যুদণ্ডাদেশ অনুমোদনের জন্য হাইকোর্টে আসে। এ ছাড়া আসামিরা আপিল ও জেল আপিল করেন। ডেথ রেফারেন্স ও আপিলের শুনানি শেষে হাইকোর্ট আজ রায় ঘোষণা করেন।

image_pdfপিডিএফ করুনimage_printপ্রিন্ট করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *