সালমানকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে সুশান্তর অপমৃত্যুর ব্যাপারে

দ্রুতগতিতে এগোচ্ছে সুশান্ত সিং রাজপুতের আত্মহত্যা-রহস্যের তদন্ত। বলিউডের প্রভাবশালী ব্যক্তিত্বদেরও রেহাই দিচ্ছে না মুম্বাই পুলিশ। এই মামলার সঙ্গে জড়িত সবার বয়ান নিচ্ছে তারা। শনিবার সকাল ৯টায় যশরাজের ব্যানারের প্রধান, পরিচালক আদিত্য চোপড়ার বয়ান নিয়েছে পুলিশ। এবার পুলিশের তালিকার পরের নামগুলো করণ জোহর ও সালমান খান।

অত্যন্ত চুপিসারে বার্সোভা থানায় আদিত্য চোপড়াকে ডেকে পাঠানো হয়। এর আগে বান্দ্রা থানায় সবার বয়ান নেওয়া হয়েছে। এই প্রথম বার্সোভা থানায় সুশান্ত সিংয়ের মৃত্যুর সঙ্গে জড়িত কারও বয়ান নিলেন তদন্তকারী কর্মকর্তারা। আদিত্য চোপড়ার বাসার কাছে বার্সোভা পুলিশের থানা। তাই এখানেই এই পরিচালককে ডেকে পাঠানো হয়। জানা গেছে, প্রায় চার ঘণ্টা ধরে পুলিশ তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। এই জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশ আদিত্যর প্রযোজনা সংস্থা যশরাজ ফিল্মসের সঙ্গে সুশান্তের চুক্তিসংক্রান্ত নানান প্রশ্ন করে।

যশরাজের ব্যানারের ‘পানি’ ছবিতে কাজ করার কথা ছিল সুশান্তের। ছবিটির পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন শেখর কাপুর। ‘পানি’ ছবির প্রস্তুতির জন্য প্রায় ১১ মাস প্রচুর পরিশ্রম করেছিলেন সুশান্ত। কিন্তু ছবিটি প্রযোজনার দায়িত্ব থেকে হঠাৎই সরে আসে যশরাজ। তাই ছবিটির কাজ শুরু হওয়ার আগেই এটি কফিনবন্দী হয়ে যায়। এই দীর্ঘ সময় একাধিক বড় ব্যানারের ছবি সুশান্তের হাতছাড়া হয়ে যায়। এই কারণে তিনি নাকি মানসিক অবসাদে চলে গিয়েছিলেন।

এদিকে সুশান্তের প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীসহ অনেকে সিবিআই তদন্তের দাবি জানিয়েছেন। কিন্তু মহারাষ্ট্র সরকারের গৃহমন্ত্রী অনিল দেশমুখ এই প্রস্তাব নাকচ করেছেন। জানা গেছে, মহারাষ্ট্র সরকার নাকি মুম্বাই পুলিশের ওপর এই কেসটি দ্রুত শেষ করার জন্য চাপ দিচ্ছেন। তাই এবার বলিউডের হাই প্রোফাইল তারকাদের বয়ান নিতে পারেন তদন্তকারী কর্মকর্তারা। জোর খবর, সালমান খানকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারে মুম্বাই পুলিশ। তবে সালমান খানকে তারা থানায় ডেকে পাঠাবে না। জানা গেছে, সালমানের ফার্ম হাউসে গিয়ে পুলিশ তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারে। জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারে করণ জোহরকেও।
এদিকে পুলিশের হাতে সুশান্তের ব্যাংক স্টেটমেন্টের বিস্তারিত এসেছে। এই স্টেটমেন্ট থেকে সুশান্ত আত্মহত্যার রহস্যের অনেক জাল খুলতে পারে বলে জানা গেছে।

image_pdfপিডিএফ করুনimage_printপ্রিন্ট করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *